April 21, 2021, 8:29 am


নোয়াখালীতে সম্পত্তি বিরোধ নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে হত্যা, চাচা আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালী শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মনুকে মসজিদ থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় পুলিশ তার চাচাকে আটক করেছে। মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) ভোরে পুলিশ অভিযুক্ত চাচাকে সদর উপজেলার নোয়াখালী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কাশিপুরের দত্তবাড়ী এলাকার নিজ বাড়ি থেকে আটক করে।
আটককৃত মো.ইকবাল হোসেন একই এলাকার মৃৃত আবদুল আলীর ছেলে। নিহত মনু নোয়াখালী সদর উপজেলার নোয়াখালী পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কাশিপুরের দত্তবাড়ী এলাকার মৃৃত আকবর আলীর ছেলে।
এর আগে, গতকাল সোমবার রাত ৯টার দিকে সদর উপজেলার নোয়াখালী পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের দত্তবাড়ী মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে রাত পৌনে ১১টার দিকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
পরিবারের অভিযোগ, নিহত মনুর পরিবারের সাথে তার চাচা ইকবালের জায়গা সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ ছিল। ওই জায়গা সম্পত্তির বিরোধকে কেন্দ্র করে চাচা ইকবালের নেতৃত্বে তার সাঙ্গপাঙ্গরা এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে।
স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, সোমবার রাতে দত্তবাড়ি এলাকা থেকে মনুকে আটক করে তার চাচা ইকবাল ও তার সহযোগিরা। তারপর দত্ত বাড়ির পাশে একটি দোকানে মনুকে আটকে রেখে বেধড়ক পিটিয়ে হত্যা করে। এ সময় মনুকে বাঁচাতে গিয়ে তার ছোট ভাই আহম্মদ আলী হামলার শিকার হয়। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।অপরদিকে, স্থানীয় এলাকাবাসী মনুকে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

নিহতের ভাই আহমেদ আলী অভিযোগ করে বলেন, তার চাচা ইকবাল হোসেন ও তার সহযোগি শাহাদাত হোসেন সহ কয়েকজন এশার নামাজের পর মনুকে মসজিদ থেকে ডেকে নিয়ে লিটন দাসের লেপ তোশকের দোকানে নিয়ে যায়। এ সময় তারা মনুকে আটকে রেখে লোহার রড় ও হেমার দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানের এলোপাতাড়ি পিটিয়ে জখম করে। এ খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে মনুকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসি। চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর মনু মারা যায়।
নিহতের মা শাহিদা বেগম জানান, ইকবালদের সাথে আমাদের জায়গা জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে আমার ছেলে মনুকে মসজিদ থেকে ডেকে এনে পিটিয়ে হত্যা করেছে ইকবাল ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীরা।
সুধারাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহেদ উদ্দিন জানান, মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত চাচাকে পুলিশ ভোররাতে আটক করেছে। অভিযোগ পেলে দ্রুত আইনানুগ গ্রহণ করা হবে।

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে