April 21, 2021, 5:45 pm


নোয়াখালীতে চাঁদাবাজির প্রতিবাদে  গাড়ী চলাচল বন্ধ

নোয়াখালী প্রতিনিধি ঃ ফেনী-লক্ষীপুর সড়কের নোয়াখালী চৌমুহনীতে যাত্রীবাহী হাই-ডিলাক্স ট্রান্সপোর্টের গাড়ীতে প্রকাশ্যে চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে মালিক সমিতি পরিবহন বন্ধ করে দিয়েছে। এতে ফেনী-লক্ষীপুরের পথে যাতায়াতকারী যাত্রী সাধারণের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।
এ ব্যাপারে যমুনা হাই-ডিলাক্স ট্রান্সপোর্ট লি: স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন কে লিখিত ভাবে অভিযোগ করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে একটি চাঁদাবাজ চক্র মারধর করে, জোরপূর্বক প্রতি গাড়ী থেকে ৫০০-৬০০ টাকা করে চাঁদা আদায় করে।
চাদাঁ না দেওয়ায় ১০-১২টি গাড়ীর চাবি নিয়ে যায়। মালিক সমিতি ৯৯৯ নাম্বারে জানালে বেগমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জের নির্দেশে থানা পুলিশ ও টি আই কামরুল ইসলামের সহযোগিতায় গাড়ী গুলোর চাবি উদ্ধার করে। কিন্তু এর পরও প্রতি গাড়ীতে জোর পূর্বক চাঁদাবাজি অব্যাহত থাকায় গাড়ীর মালিকরা গত ২৪ ফেব্রুয়ারি বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে দেখা করে এবং তার পর বিকালে পুলিশ সুপারের নির্দেশে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের সাথে সাক্ষাৎ করে চাঁদাবাজির বিষয়ে জানায়। এর পরও চাঁদাবাজি অব্যাহত থাকায় ২৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০ঘটিকা হতে ফেনী-লক্ষীপুর সড়কের চলাচলকারী যমুনা হাই-ডিলাক্স ট্রন্সাপোর্ট লিঃ মালিকানাধীন ৪০টি গাড়ী বন্ধ রয়েছে। এতে হাজার-হাজার যাত্রী সংকটে পড়েছে।
এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খিসার নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, যমুনা হাই-ডিলাক্স কোম্পানির কয়েকজন মালিক আমাকে জানালে, আমি বেগমগঞ্জ থানাকে বলেছি এটা বন্ধ করতে, চাদাঁবাজি বন্ধ হয়নি সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আমি ওসির সাথে কথা বলে জানতে হবে।
যমুনা হাই-ডিলাক্স ট্রান্সপোর্ট লি: এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজিজুর রহমান মানিক বলেন, বেলাল হোসেন ও আমির হোসেন দয়াল নামে সন্ত্রাসী গন মারধর করে, জোরপূর্বক চাঁদাবাজি করে। প্রশাসন কে জানালে হত্যা করবে বলে হুমকি দেয়।
প্রশাসন কে জানানোর পর ও কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় আমরা বাধ্য হয়ে গাড়ী চলাচল বন্ধ করেছি, প্রশাসন চাঁদাবাজি বন্ধ করলে আমরা পুনরায় গাড়ী চালাবো। ব্যাংক লোনের ম্যাধ্যমে হাই ডিলাক্সের গাড়ী গুলো কিনে রোডে নামানো হয়েছে। চাঁদাবাজির কারণে গাড়ীগুলো বন্ধ থাকায় লক্ষ-লক্ষ টাকা ক্ষতির মুখে পড়েছে

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে