January 23, 2021, 10:49 am


সন্ত্রাসীকর্মের প্রতিকারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন কলেজ উপাধ্যক্ষ

 

নোয়াখালী : নোয়াখালী সদর উপজেলার মতিপুরে ভুমি মালিকের কাছে চাঁদা দাবি ও সন্ত্রাসীকর্মের প্রতিকারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন নোয়াখালীর সরকারী মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আ ফ ম রুহুল আমিন।
গতকাল (মঙ্গলবার) সকাল ১১ টার দিকে নোয়াখালী প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে ভুক্তভোগী উপাধ্যক্ষ অভিযোগ করেন, তিনি ২০০৫ সালে সদর উপজেলার মতিপুরে জনৈক এইচ এম শামছুদ্দিনের কাছ থেকে ১৮ শতক জমি কিনে বিগত ১৬ বছর ধরে ভোগ দখল করে আসছেন।
তিনি অভিযোগ করেন, গত ৮ মার্চ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক সুজনের প্রত্যক্ষ নির্দেশে আমান উল্যাহ শাহিন, শাহাদাত হোসেন, হারুন, পারভেজ, রিয়াজ ও আবদুল মতিন স্বপনসহ ২৫/৩০ জন ব্যক্তি তাঁর কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। এ সময় তিনি ওই সংঘবদ্ধ শক্তির সংঘটিত অপরাধ বিরুদ্ধে সুধারাম থানায় সাধারণ ডায়েরীভুক্ত করেছেন।
এদিকে, সর্বশেষ গত ২১ ডিসেম্বর ওই উপাধ্যক্ষ তাঁর জমিতে ইমারত নির্মাণ শুরু করলে আবারো ফজলুল হক সুজনের নেতৃর্ত্বে উপরোক্ত ব্যক্তিরা ওই জমিতে নির্মাণাধীণ দেওয়ালের কাজ বন্ধ করে দেন। এ সময় তারা ওই জমিতে থাকা নির্মাণ সামগ্রী, ঘরের দরজা, জানালা ভেঙ্গে জোরপূর্বক মূল্যবান মালামাল লুট করে নেয়। একপর্যায়ে, পরবর্তী ৭দিনের মধ্যে চাঁদা না দিলে তাঁকে ভিটেমাটি থেকে উ”েছদসহ প্রাণনাশের হুমকি দেয় ওই সংঘবব্ধরা।
অপরদিকে, সংঘবদ্ধরা বিভিন্ন সময়ে ওই ভুক্তভোগী উপাধ্যক্ষের সাথে সামাজিক বৈঠকে বসার কথা বলেও বারবার সময়ক্ষেপন করে একপর্যায়ে আর বসেননি।
এ বিষয়ে ফজলুল হক সুজন বলেন, তার খালুর সাথে ওই উপাধ্যক্ষের জমি সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে। তিনি বলেন, ওই শিক্ষক বিষয়টির সমাধান না করে বিভিন্ন মাধ্যমে অপপ্রচার করে বেড়া”েছন।
এহেন পরি¯ি’তিতে ওই উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আ ফ ম রুহুল আমিন পরিবার পরিজন নিয়ে চরম নিরাপত্তহীনতা ভোগ করছেন।

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে