October 27, 2020, 4:41 pm


গৃহবধূকে ৪ টুকরো করে হত্যা: নিহতের ছেলে আটক

নোয়াখালী:

নোয়াখালীতে নারী নির্যাতনের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলেছে। জেলার বেগমগঞ্জে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ ও বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার সুবর্ণচরে নুর জাহান বেগম (৫৭) নামে এক গৃহবধূকে চার টুকরো করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে হুমায়ূন কবিরকে (২৮) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে চরজব্বার থানা পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। আটক হুমায়ূন কবির উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মৃত আব্দুল বারেকের ছেলে।

চরজব্বার থানার ওসি সাহেদ উদ্দিন আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার প্রেক্ষিতে সন্দেহজনক হওয়ায় নিহতের ছেলেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

উল্লেখ, বুধবার বিকেল ৫টার দিকে পুলিশ উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের উত্তর জাহাজমারা গ্রামের প্রভিটা ফিডের পেছনের একটি ধানখেত থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত নুর জাহান বেগম উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মৃত আব্দুল বারেকের স্ত্রী। তিনি আট ছেলে ও এক মেয়ের জননি।

ওই নারীকে কেটে ৪ টুকরো করে হত্যা করা হয়েছে। তবে শরীরের টুকরো অংশের মধ্যে বুক ও পায়ের অংশ এখনও নিখোঁজ রয়েছে।

নিহতের ছেলে হুমায়ন কবির (২৮) জানান, বুধবার ভোর থেকে তার মা নিখোঁজ ছিলেন। পরে স্থানীয় এক নারী বিকেলের দিকে ধানখেতের আইলে শামুক খুঁজতে গিয়ে মরদেহের একটি টুকরো দেখতে পান। বিষয়টি জানাজানি হলে তিনি মরদেহের পাশে শামুকের ব্যাগ দেখে শনাক্ত করেন এটি তার মায়ের মরদেহ।

চরজব্বার থানার ওসি সাহেদ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নিহত গৃহবধূর মরদেহের দুই টুকরো উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহের উদ্ধারকৃত টুকরো অংশের মধ্যে রয়েছে, মাথা আর কোমরের অংশ।

ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে বলেও জানান ওসি।

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


সংবাদ পড়তে লাইক দিন ফেসবুক পেজে